বনধের দ্বিতীয় দিনেও উত্তর দিনাজপুরে কোনও সাড়া ফেলল না বনধ

13

দিনদর্পণ: বনধের দ্বিতীয় দিনেও বনধ কোনো প্রভাব ফেলতে পারলো না উত্তর দিনাজপুর জেলায়৷

পেট্রোল, ডিজেল, রান্নার গ্যাসের মূল্যসহ দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি রোধে ১২ দফা দাবিতে কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়নগুলি ও কেন্দ্রীয় ফেডারেশন সমূহ ৪৮ ঘন্টা ভারত বনধের ডাক দেয়৷ বনধে যাতে বনধ সমর্থনকারীরা কোনো সমস্যা তৈরি করতে না পারে তাইজন্য আগে থেকেই পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছিল৷ জায়গায় জায়গায় পুলিশের টহল দেওয়ার ব্যবস্থাও করা হয়৷

বনধের দ্বিতীয় দিনে সকাল থেকেই রাস্তায় নেমেছে সরকারি বাস। অন্যান্য দিনের তুলনায় বেসরকারী যানবাহনও রাস্তায় চলেছে৷ তবে সংখ্যায় কিছুটা কম। একটু বেলা বাড়তেই কিছু কিছু দোকানপাটও খুলতে দেখা গিয়েছে। সরকারি অফিসের হাজিরাও ছিল অন্যান্য আর পাঁচটা দিনের মতোই। বনধ সমর্থনকারী ট্রেড ইউনিয়নের কর্মী সমর্থকেরা রাস্তায় বনধ সফল করতে উদ্যোগী হলেও সাধারন মানুষ কাজে বেড়িয়েছেন বনধকে উপেক্ষা করেই। ৪৮ ঘন্টার সারাভারত ধর্মঘটে উত্তর দিনাজপুর জেলায় তেমন কোনও অপ্রীতিকর ঘটনাও ঘটেনি।