বনধে জোরাল প্রভাব পড়েছে পশ্চিম মেদিনীপুরে

31

দিনদর্পণ: শ্রমিক সংগঠনের ডাকা বনধে জোরাল প্রভাব পড়েছে পশ্চিম মেদিনীপুরের বিস্তীর্ণ এলাকায়। বহু জায়গায় রেল-বাস-সড়ক অবরোধ করেছেন বনধ সমর্থনকারীরা। এর জেরে সাধারণ জনজীবনে ব্যাপক প্রভাব পড়েছে।

এদিন পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার বালিচক বাজার থেকে কিছুটা দূরে পথ অবরোধ করে বনধ সমর্থনকারীরা। আটকে যায় সরকারী বাসসহ বহু গাড়ী। বালিচক তেমাথানি রাজ্য সড়ক অবরোধের জেরে সমস্যায় পড়েন নিত্য যাত্রীরা।

অন্যদিকে বনধের সমর্থনে বামনেতা কর্মীরা সকাল থেকেই ঘাটালে পথ অবরোধ করেছে। এরফলে অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে যোগাযোগ ব্যবস্থা। পরে ঘাটাল থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে এসে অবরোধ তোলেন৷ এর জেরে সিপিএমের ১১ জন জেলা ও রাজ্য স্তরের নেতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এদিন জেলার একাধিক রুটে যোগাযোগ ব্যবস্থা স্বাভাবিক রাখতে সরকারী বাস রাস্তায় নামানো হয়েছে। তবে বনধ সমর্থকদের দাপটে সরকারী গাড়িও আটকে পড়েছে রাস্তায় রাস্তায়।গোপীগঞ্জ বাজারের চিত্রটা এমনই। রাস্তায় বেঞ্চ পেতে রাস্তা অবরোধ করেছেন বিক্ষোভকারীরা। এছাড়াও বেলদা স্টেশনে ট্রেন লাইনে নেমে রাস্তা অবরুদ্ধ করার চেষ্টা চালিয়েছেন বিক্ষোভকারীরা। এর জেরে বেলদা-হাওড়া লোকাল আটকে পড়েছে স্টেশনে।তবে সব ক্ষেত্রেই পুলিশ কড়া হাতে বনধের বিরোধীতায় পথে নেমেছে। এর ফলে খুব সকালে রাস্তা অবরুদ্ধ থাকলেও বেলা বাড়ার পর অল্প সংখ্যক বাস রাস্তায় দেখা যায়৷ তবে বেসরকারী বাস বিশেষ নজরে আসেনি কোথাও