লক্ষ্মীপুজোয় বাজার আগুন

8

দিনদর্পণ : আগামী বুধবার কোজাগরি লক্ষ্মী পুজো৷তার আগেই শাকসব্জী,ফলমূল থেকে শুরু করে ফুলের বাজারের পারদ চড়ছে চড় চড় করে৷দামের চোটে মাতৃ আরাধনায় টান পড়ছে মধ্যবিত্তের পকেটে৷পিছিয়ে নেই লক্ষ্মী প্রতিমার দামও৷

যদুবাবুর বাজার,লেক মার্কেট,শিয়ালদহ কোলে মার্কেট, বাগমারি বাজার,মানিকতলা বাজার,বালিগঞ্জ ও গড়িয়াহাট মার্কেট,জানবাজার,হাওড়া ফুল মার্কেটসহ শহরের সবকটি বাজারে গেলেই তার আঁচ পাওয়া যায়৷উমার কৈলাসে ফেরার পালা শেষ হতে না হতেই শুরু হয়ে গিয়েছে আরও একটি উৎসবের তোড়জোড়৷ধনসম্পদের দেবী লক্ষ্মীর আরাধনায় মেতে উঠতে চলেছে আম বাঙালী৷ধনী-দরিদ্র নির্বিশেষে সাধ্যমতো ধনদেবীর আরাধনায় মত্ত হন সকলেই৷তাই নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিষের পাশাপাশি পুজোর উপকরণের চাহিদাও থাকে তুঙ্গে৷আর চাহিদার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়তে থাকে জিনিষপত্রের দাম৷

একাদশী থেকেই বাড়তে শুরু করেছে প্রতিমা,ফুল ও ফলের দাম৷দামের চোটে নাভিশ্বাস উঠতে শুরু করেছে আমবাঙালীর৷ছোট সাইজের লক্ষ্মী প্রতিমার দাম ১০০ থেকে ১৫০ টাকা,একটু বড় সাইজের প্রতিমার দাম ২৫০-৩০০৷ আপেলের দাম কেজি প্রতি ৮০-১২০ টাকা৷শাঁকালু ১২০টাকা,ধানের শিস ১৫-২০ টাকা,দোপাটি ৩০ টাকা,বড় সাইজের একটি আনারস ৫০ টাকা,মোসাম্বি ১০-১২ টাকা প্রতি পিস,সবজির মধ্যে জ্যোতি আলু প্রতি কেজি ১৬-১৮ টাকা,চন্দ্রমুখী ২০-২২ টাকা,পটল ৪০ টাকা,ঝিঙে ৩০ টাকা,বাঁধাকপি ২৫-৩০ টাকা,করলা ৫০ টাকা,বরবটি ৩০-৪০ টাকা৷

অগ্নিমূল্যের দরের মধ্যেই লক্ষ্মী পুজোর প্রস্তুতি নিচ্ছে বাঙালী৷